ফিটনেসসুস্বাস্থ্য

কিডনি সুস্থ রাখতে যে নিয়ম গুলো অবশ্যই মানতে হবে

কিডনি নিয়ে আমাদের শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। কিডনি আমাদের শরীরের ক্ষতিকর আবর্জনা এবং বজ্র পদার্থ বাহিরে বের করে দিতে সাহায্য করে। আমাদের সুস্থ থাকার জন্য কিডনি অবশ্যই ভালো রাখতে হবে। আমাদের কিডনি কোনোভাবে খারাপ হয়ে গেলে শরীরে নানা রকমের মারাত্মক বিপজ্জনক রোগ সহজেই বাসা বাঁধে।

কিডনি সুস্থ রাখতে যে নিয়ম গুলো অবশ্যই মানতে হবে
কিডনি সুস্থ রাখতে যে নিয়ম গুলো অবশ্যই মানতে হবে


তাই সুস্থ এবং সুন্দর ভাবে জীবন যাপন করার জন্য অবশ্যই কিডনি ভালো রাখতে হবে। কিডনি খারাপ বা নষ্ট হয়ে গেলে মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে। তাই কিডনি ভালো রাখার ব্যাপারে আমাদের এখন থেকেই সচেতন হতে হবে।


কারণ একদিন বা দুদিনে কিডনি খারাপ হবে না বা খারাপ হলেও আমরা সাথে সাথেই সেটা টের পাব না। তাই অবশ্যই আমাদের সর্বদা সতর্ক এবং সচেতন থাকতে হবে।


আপনার কিডনি ভালো আছে কিনা কিভাবে বুঝবেন

শুরুতেই কোন রোগ সহজে ধরা পড়ে না। তবে বিভিন্ন রকমের সমস্যা এবং লক্ষণ এর মাধ্যমে অবশ্যই জানা যায়, যে আপনার কিডনি ভালো আছে কিনা।

তবে কিডনি খারাপ হয়ে গেলে বহুদিন পর্যন্ত এর কোন লক্ষণ সহজে নজরে পড়ে না। *তবে শুরুর দিকে খাবার খাওয়ার প্রতি অনীহা সৃষ্টি হতে পারে।


  • বমি বমি ভাব হওয়ার আশঙ্কা থাকে।
  • কোন কাজ না করলে শরীর প্রচন্ড ক্লান্ত অনুভব হয়।
  • প্রসাব অস্বাভাবিক এবং বিভিন্ন তারতম্য দেখা দেয়।


তবে এই ধরনের সমস্যাকে বেশিরভাগ লোকই ছোটখাট সমস্যা বলে এগিয়ে যায় এবং গুরুত্ব সহকারে ভাবেনা। তবে ছোট বড় সমস্যা যাই হোক না কেন অবশ্যই ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া আবশ্যক। কারণ আগে থেকে সচেতন থাকলেই মারাত্মক বিপজ্জনক পরিস্থিতির সহজেই মুক্তি যাওয়া যায়।

এবং অপারেশন সহ কিডনির ব্যয়বহুল চিকিৎসা হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। এছাড়াও বিশেষজ্ঞদের মতে যাদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে এবং যারা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত তাদের অবশ্যই এই রোগগুলো সর্বদা নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

কারণ এই ধরনের রোগ কিডনির উপরে প্রভাব ফেলে এবং কিডনি খারাপ হওয়ার জন্য দায়ী। এক্ষেত্রে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত এবং সর্বদা নিজেদের সতর্ক থাকা দরকার। রক্তচাপের রোগীদের অবশ্যই নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করতে হবে এবং নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

কিডনি ভালো রাখার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করা আবশ্যক এবং এটা কিডনির জন্য ভালো। ধূমপান এবং অ্যালকোহল থেকে অবশ্যই দূরে থাকতে হবে। কারণ নেশাদ্রব্য কিডনির জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর এবং অনেক ঝুঁকিপূর্ণও বটে।

কিডনি ভালো রাখার জন্য অবশ্যই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে অতিরিক্ত মেদ ও ওজন কিডনির জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।ডায়াবেটিসের রোগীদের রক্তের সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখা এবং নিয়মিত পরীক্ষা করা। প্রতিদিন ব্যায়াম করা কারণ ব্যায়াম শরীরের হাজারো রোগ মুক্তির কারণ।

শরীর সম্পূর্ণ ভাবে সুস্থ এবং রোগমুক্ত রাখার ক্ষেত্রে ব্যায়ামের বিকল্প কিছু হতেই পারে না। অ্যান্টিবায়োটিক এবং ব্যাথা নাশক কোন প্রকার ঔষধ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কখন খাওয়া উচিত নয়। কারণ এটা কিডনির জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে।

কিডনি ভালো রাখার জন্য যা করতে হবে

কিডনি ভালো রাখার জন্য অবশ্যই প্রাকৃতিক খাবার খেতে হবে এবং কিডনি ভালো রাখার জন্য কোন প্রকার অবহেলা অসচেতন থাকা যাবেনা।

কিডনি ভালো রাখার জন্য সবুজ শাকসবজি

সবুজ শাকসবজি আমাদের কিডনি ভালো রাখতে সাহায্য করে এবং স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। সবুজ শাকসবজিতে ভিটামিন সি এবং ভিটামিন এ সহ নানা রকম পুষ্টিসমৃদ্ধ উপাদান থাকার কারণে আমাদের শরীরের অনেক উন্নতি ঘটায় এবং রোগমুক্ত রাখতে সাহায্য করে।

কিডনি সুস্থ রাখতে যে নিয়ম গুলো অবশ্যই মানতে হবে

এছাড়াও তাদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে তাদের উচ্চ রক্তচাপ হ্রাস করতে এবং রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখার জন্য বেশ কার্যকরী।


কিডনি ভালো রাখার জন্য আপেল

আপেল কিডনির জন্য অনেক উপকারী এবং কিডনি ভালো রাখতে সাহায্য করে। আপেল আমাদের দেহে বিষাক্ত ব্যাকটেরিয়া গুলো শোষণ করে এবং ফাইবার দ্বারা ভরপুর করতে সাহায্য করে। এছাড়াও আপেলের রয়েছে নানা রকম উপকারিতা। আপেল আমাদের হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে এবং আপেল কিডনির জন্য অত্যন্ত ভালো।

কিডনি ভালো রাখার জন্য হলুদ

হলুদ আমাদের কিডনি পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে এবং আমাদের দেহের বিভিন্ন রোগের সাথে যুদ্ধ করে। হলুদ কিডনির রোগ এবং কিডনিতে পাথর প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে। তাই অবশ্যই আমাদের তরকারির সাথে পরিমাণ মতো হলুদ ব্যবহার করা উচিত।

কিডনি ভালো রাখার জন্য রসুন

কিডনি ভালো রাখার ক্ষেত্রে রসুন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কিডনির ধাতব ক্ষতি কার পদার্থ থেকে রক্ষা করে এই রসুন। তাই কিডনি ভালো রাখার জন্য অবশ্যই নিয়মিত রসুন খাবেন। এছাড়াও রসুন রয়েছে অগণিত রোগের উপকারিতা আর কিডনি ভালো রাখার ক্ষেত্রে এটি অত্যন্ত কার্যকরী।

কিডনি ভালো রাখার জন্য লেবু

লেবু অনেক রোগে উপকারী তা আমরা কমবেশি সবাই জানি। তবে লেবু কিডনির জন্য অনেক উপকারী এবং কিডনি পরিষ্কার রাখতে ও কিডনিতে পাথর হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। কিডনি ভালো রাখার জন্য নিয়মিত লেবুর শরবত খেতে পারেন।

কিডনি ভালো রাখার জন্য আদা

আদা আমাদের পেটের বিভিন্ন যন্ত্রের পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি কিডনি পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে। এছাড়াও আদা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে রান্নার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।

এছাড়াও রয়েছে আদায় অনেক উপকার বিশেষ করে বদহজম মুখের রুচি কমে যাওয়া এবং বমি বমি ভাব বা সমস্যা গুলো দ্রুত সমাধানের ক্ষেত্রে আদা খুবই কার্যকরী।

বাইরের অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া ত্যাগ করুন

বাইরের অস্বাস্থ্যকর ফাস্টফুড সহ তৈলাক্ত সব ধরনের খাবার খাওয়া অবশ্যই ত্যাগ করুন। কারণ এসব খাবার আপনার কিডনির জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এছাড়াও অতিরিক্ত প্রোটিন যুক্ত খাবার খাবেন না।

তবে প্রোটিন আমাদের শরীরের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় একটি উপাদান। প্রোটিন তো আমাদের অবশ্যই খেতে হবে। তবে এটা পরিমাণ মতো তবে লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে অতিরিক্ত হয়ে না যায়।

বিশেষ করে লাল মাংস কখনোই অতিরিক্ত খাবেন না। যেমন: গরুর মাংস এবং ছাগলের মাংস এই মাংসগুলো অতিরিক্ত খেলে কিডনির মারাত্মক ক্ষতি হয়। তাই আমাদের খাবার খাওয়ার ব্যাপারে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে।

যাতে খাবার গুলো অতিরিক্ত মাত্রায় হয়ে না যায়। এছাড়াও আপনার অবশ্যই মাঝে মাঝে কিডনি পরীক্ষা করা উচিত এবং কিডনি ভালো রাখার ব্যাপারে সর্বদা সচেতন থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *