নারী

কি ভাবে একজন উত্তম নেক স্ত্রী হবেন – ৮টি কাজের মাধ্যমে আপনি হতে পারেন একজন উত্তম স্ত্রী

আপনাদের সবাইকে স্বাগতম আমাদের এই নতুন আর্টিকেল কি ভাবে একজন উত্তম নেক স্ত্রী হবেন।৮টি কাজের মাধ্যমে আপনি হতে পারেন একজন উত্তম স্ত্রী। এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করলে আপনি জানতে পারবেন আদর্শ স্ত্রী হ‌ওয়ার সম্পুর্ন নিয়ম।এ তাহলে দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক । কি ভাবে একজন উত্তম

কিভাবে একজন উত্তম নেক স্ত্রী হবেন

উত্তম স্ত্রী হওয়ার এক নম্বর উপায়:একজন মুমিন স্ত্রী হিসেবে অবশ্যই উত্তম হ‌ওয়া উচিত। হ্যা বন্ধুরা আজকের আর্টিকেল টি মহিলা দের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হলেও পুরুষ ভাইদের ও কাছে কম গুরুত্বপূর্ণ নয়।এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়লে বুঝবেন যে সমস্ত দায়িত্ব শুধু মহিলাদের নয় । পুরুষ ভাইদের ও অনেক দায়িত্ব রয়েছে যা ইমানের সহীত পালন করা উচিত।

উত্তম স্ত্রী হওয়ার দ্বিতীয় উপায়:একজন উত্তম স্ত্রী হওয়ার জন্য সর্বপ্রথম দাম্পত্য জীবনের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করা। আমাদের জীবনের সকল নিয়ন্ত্রক হলো মহান আল্লাহ তা’আলা তার কথা মতই আমাদের জীবনে সব কিছু ঘটে থাকে। তাই আমাদের আল্লাহকে সব সময় স্মরণ করতে হবে তাকে ভুলে গেলে চলবে না। তাই একজন উত্তম অনেক স্ত্রী হওয়ার জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করতে হবে আমাদের বৈবাহিক জীবন যেন সুন্দর ও মসৃণ হয়।

উত্তম স্ত্রী হওয়ার তৃতীয় উপায়:স্বামীকে সর্বদা খুশি রাখা কারণ একজন উত্তম স্বামী আর একজন উত্তম স্ত্রী মিলিয়ে জান্নাত। তিরমিজি তে বর্ণিত রয়েছে হযরত উম্মে সালমা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ননা করেছেন কোন স্ত্রী যদি এমন এক সময়ে মৃত্যুবরণ করে‌ সেই সময়ে যদি তার স্বামী সন্তুষ্ট থাকে তার উপর তাহলে সেই নারী জান্নাতে প্রবেশ করবে। তিরমিজি হাদিস (নাম্বারঃ ১১৬০) তাই একজন উত্তম ও আদর্শ স্ত্রী স্বামীর সন্তুষ্টি লাভ করায় তার প্রধান কাজ। তবে স্বামী যদি ইসলামিক বিরুদ্ধে কোনো কার্যকলাপ কিংবা কাজ করতে বলে সে ব্যাপারে স্ত্রী তার বিরোধিতা করতে পারবেন।ও তাকে বোঝানোর চেষ্টা করবেন।

একজন উত্তম নেক স্ত্রী হওয়ার উপায়

উত্তম স্ত্রী হওয়ার চতুর্থ উপায়:ঝগড়া এবং রাগারাগি থেকে বিরত থাকা । ছোট ছোট বিষয় কিংবা রাগারাগি হওয়ার কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। হয়তো স্ত্রি কোন দোষ করেনি তবুও স্বামীকে অনুকূল পরিবেশে আনার জন্য স্ত্রীকে ক্ষমা চেয়ে নিতে হবে। স্বামীর কথার উপর উত্তর না দিয়ে চুপ থাকাটা সবচেয়ে ভালো উপায় দ্বন্দ্ব রাগারাগি থেকে বিরত থাকার জন্য। এভাবে চললে কখনোই স্বামী-স্ত্রীর মাঝে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হবে না।

উত্তম স্ত্রী হওয়ার পঞ্চম উপায়:স্বামীকে ভালো কাজের জন্য ধন্যবাদ জানানো। স্বামী যদি সঠিক পথে ভালো কাজ করে তাহলে তার কাজের প্রশংসা করা উচিত তাকে ধন্যবাদ জানাতে হবে তাহলে সে তার কাজের প্রতি আরও অগ্রসর হবে এবং মনে প্রশান্তি লাভ করবে।

উত্তম স্ত্রী হওয়ার ষষ্ঠ উপায়:স্বামীর সঙ্গে আড্ডা দেওয়া। আমাদের নবী করিম সাঃ বলেছেন এমন নারীকে বিবাহ করা যে তোমাকে আনন্দে রাখবে এবং তুমিও তাকে আনন্দ রাখতে সক্ষম হবে। বিশেষ করে পুরুষেরা হাস্যজ্জল আনন্দ মুখর নারীদের বেশী পছন্দ করে তাই তোমাকে খেয়াল রাখতে হবে তোমার স্বামী কিসে বেশি আনন্দ পায় তার সাথে বেশি করে সময় কাটাতে হবে।

উত্তম স্ত্রী হওয়ার সপ্তম উপায়:নিজেকে সবসময় স্বামীর মতো করে তৈরি করার চেষ্টা করবেন তাহলে স্বামী আপনার প্রতি আকৃষ্ট থাকবে এবং মতবিরোধের সৃষ্টি হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *