টিপস

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল কি? এটা থেকে কিভাবে আয় করা যায়?

ফেসবুক সকল ধরনের অনলাইন প্রকাশনার জন্য ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল ফিচার প্রদান করছে । এই নিবন্ধে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল কি, কিভাবে কাজ করে ও কিভাবে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে আয় করা যায় সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল কি? বর্তমানে ওয়েবসাইটের জন্য ফাস্ট লোডিং টাইম অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। মোবাইল ব্যবহারকারী বন্ধুদের জন্যও একই বিষয় প্রযোজ্য। মূলত এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ফিচার নিয়ে এসেছে ।

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলটি হলো মূলত একটি এইচটিএমএল ডকুমেন্ট, যা একটি কাস্টম আর্টিকেল ফরম্যাট ফলো করে ও ফেসবুক মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইল ডিভাইসে বেশ দ্রুত লোড হয়।

নিবন্ধ প্রকাশকগন যাতে মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য তাদের নিবন্ধ অপটিমাইজ করতে পারে, সে লক্ষ্যে ফেসবুক ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল তৈরি করা হয়েছে।

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সেটআপ করার পর যখন কোনো আর্টিকেল শেয়ার করা হয়, তখন সেই আর্টিকেলটি ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল ফরম্যাটে রুপান্তরিত হয়ে যায়। এই ফিচারটিকে জনপ্রিয় করতে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল থেকে আয় এর সুযোগ রেখেছে ।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর সুবিধা-অসুবিধা

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ফিচারের মাধ্যমে নিবন্ধ ফেসবুক সার্ভারে হোস্ট করা হয়। এর ফলে লোড টাইম অনেক দ্রুত হয় ও মোবাইলের জন্য বেশ সুবিধা হয়। তাহলে চলুন একনজরে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর সুবিধা ও অসুবিধাগুলো জেনে নেওয়া যাক।

সুবিধা: 

এই আর্টিকেল ইন্টারেক্টিভ ফিচারে রয়েছে, যেমনঃ ট্যাপ-টু-জুম ইমেজ গ্যালারি, ভিডিও অটো-প্লে, ইত্যাদি

  • ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর ক্লিক রেট অপেক্ষাকৃত ২০% বেশি।
  • কনটেন্ট এর বোটমে থাকা ‘Related content” অপশনে ওয়েবসাইট থেকে অন্যান্য আর্টিকেল ও প্রোমোট করা যায়।
  • নিবন্ধের নিচে থাকা ইমেইল।
  • সাবস্ক্রিপশন ব্যবহার করে ইমেইল লিস্ট তৈরির সুযোগ রয়েছে।
  • কাস্টম থিম দ্বারা কনটেন্ট ব্র্যান্ডেড করার সুবিধা।
  • ফেসবুক অ্যাড প্ল্যাটফর্ম থেকে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে আয়ের সুযোগ।

অসুবিধা:

  • শুধুমাত্র ফেসবুক মোবাইল অ্যাপে রয়েছে।
  • ফেসবুক এড রেভিনিউ থেকে ৩০% কেটে নেয় ।
  • ফেসবুক লিমিট করে দেয় প্রতি আর্টিকেলে এড এর পরিমাণ।
  • ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা যায়না।
  • ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সেটাপ করতে কিছুটা টেকনিক্যাল দক্ষতার প্রয়োজন।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ থেকে আয় এর নিয়ম

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ বা এর থেকে যে আয় করা সম্ভব, সে সম্পর্কে অধিকাংশ মানুষই জানেন না। ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ প্ল্যাটফর্মে যোগ দিতে প্রয়োজন হবে এডমিন/এডিটর রোল আছে এমন একটি ফেসবুক ও পেজ ও কনটেন্ট আছে এমন একটি ওয়েবসাইট।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ সাইন-আপ

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধের জন্য সাইন-আপ করা অনেক সহজ। মূলত ফেসবুক ক্রিয়েটর স্টুডিও এর মনেটাইজেশন ট্যাব থেকে সাইন-আপ করা যায়। ফেসবুক ক্রিয়েটর স্টুডিও এর উক্ত পেজে প্রবেশ করতে হবে।

যদি আপনাদের কাঙ্ক্ষিত পেজ সিলেক্ট করার পর Instant Articles অপশনের পাশে ব্লু চেকমার্ক থাকে, তবে আপনারা বুঝে নিবেন আপনাদের ওয়েবসাইট মনেটাইজ করা যাবে। এখান থেকে সাইন আপ করার পর Publishing Tools সেকশনে Instant Artciles নামে একটি নতুন অপশন দেখতে পাবেন। সাইন আপ এর ক্ষেত্রে আপনাদের ওয়েবসাইট এর ধরন ও একটিভিটি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হবে।

ফেসবুক পেজে ওয়েবসাইট কানেক্ট করা

Publishing Tools এর আন্ডারে থাকা Instant Article সেকশন প্রবেশ করে পেজ আপনাদের আইডি সংগ্রহ করতে হবে । Configuration > Tools > Connect Your Site থেকে পেজ উক্ত আইডি টি পাবেন।
এই নিবন্ধে আইডি ব্যবহার করে ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেজ কানেক্ট করতে হবে। আপনাদের ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা তৈরী হলে আগে ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল প্লাগিন ইন্সটল করে নিতে হবে। ইন্সটলের পর পেজ আইডি ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিনে প্রবেশ করে এন্টার করতে হবে ।
নিবন্ধ আইডি প্রদানের পর ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ সেটাপের প্রক্রিয়া শুরু হবে। এরপর ওয়েবসাইটে কনফিগারেশন সম্পন্ন করে ফেসবুক পেজে ফেরত যেতে হবে ও Claim URL বাটনে ক্লিক করতে হবে।

ইন্সট্যান্ট নিবন্ধ কাস্টমাইজেশন

এরপর আপনাদের ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধের কনটেন্ট প্রদর্শনের স্টাইল কাস্টমাইজ করার পর্ব। Instant Articles সেকশনে প্রবেশ করে Configuration > Tools > Styles এ প্রবেশ করতে হবে। এরপর কোম্পানি ব্র্যান্ডিং ও আর্টিকেল স্টাইল কাস্টমাইজ করা যাবে। প্রিভিউ টুল ব্যবহার করে নতুন স্টাইল সেভ এর আগে পরীক্ষা করতে কখনোই ভুলবেন না।
আর্টিকেল সাবমিশন
ব্র্যান্ডিং এর কাজ সম্পুর্ণ হলে এবার ফেসবুক ১০টি স্যাম্পল নিবন্ধ খুঁজবে রিভিউ এর জন্য। এটি হচ্ছে এপ্রুভাল প্রক্রিয়ার ফাইনাল ধাপ । আপনাদের ব্লগে কমপক্ষে ১০টি পাবলিশ করা পোস্ট থাকতে হবে এপ্রুভাল পেতে চাইলে।
আপনাদের ব্লগে যদি কমপক্ষে ১০টি পোস্ট না থাকে, তবে আবেদন করতে পারবেন না। এছাড়া আবেদনের সময় শুধুমাত্র আপনাদের সেরা নিবন্ধ নির্বাচন করতে ভুলবেন না।

মনিটাইজেশন

উপরিউক্ত সকল প্রক্রিয়ার কাজ শেষ হওয়ার পর তখন আসবে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ থেকে আয় এর সুযোগ। ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ সেটাপ এর পর তবেই মনিটাইজেশনের সুযোগ আসবে।
মনেটাইজেশন ট্যাব খুঁজে পাবেন ক্রিয়েটর স্টুডিওতে। ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ অপশনে ক্লিক করে মনেটাইজেশনের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন। এপ্লাই করার কিছুদিন পর আপনাদের আবেদন এপ্রুভ করা হবে, (যদি ফেসবুকের স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী আপনাদের সাইটের কনটেন্ট ও অন্যান্য টেকনিক্যাল বিষয় হয়ে থাকে তাহলে)। এপ্রুভ হওয়ার পর পাবলিশ করা পোস্ট অটোমেটিক ইন্সট্যান্ট নিবন্ধে পরিণত হবে।
ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল: আপনাদের পেজে যদি ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এপ্রুভ হয়, তাহলে পোস্ট শেয়ার করার পর লিংক থাম্বনেইলে একটি ঠাণ্ডার আইকন (ϟ) দেখানো হবে । এই ϟ আইকন দ্বারা ইন্সট্যান্ট নিবন্ধে বোঝায়।
সকল ভিজিটর বন্ধুদের কথা মাথায় রেখে এই এই নিবন্ধে সহজভাবে ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ সেটাপ এর নিয়ম দেখানো হয়েছে। বিস্তারিত জানার জন্য ঘুরে আসতে পারেন ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধের এর অফিসিয়াল ওয়েব পেইজ থেকে।

কেনো ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ব্যবহার করা উচিত

বর্তমানে অধিকাংশ ফেসবুক ব্যবহারকারী বন্ধুরা মোবাইল থেকে ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন। এখন আপনারা যদি উক্ত অডিয়েন্সকে টার্গেট করে আপনাদের কনটেন্ট সাজান, তবে সফল হওয়ার সুযোগ রয়েছে। এজন্য আবার কনটেন্ট মনিটাইজেশনের জন্য ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সাহায্য করতে পারে।
এছাড়া ইনস্ট্যান্ট নিবন্ধ দ্রুত লোড হওয়ায় ব্যবহারকারীগণ অধিক ক্লিক করে থাকেন। আপনাদের ফেসবুক পেজে যদি মোটামুটি সংখ্যার ফলোয়ার থাকে, তাহলে ফেসবুক ইন্সট্যান্ট নিবন্ধ আপনাদের জন্য বেশ উপকারী হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *