টিপস

ফোনে ডু নট ডিস্টার্ব মোড কি? এর সুবিধা ও ব্যবহারের নিয়ম 2022

ফোনে ডু নট ডিস্টার্ব মোড: বর্তমান সময় মোবাইল ফোন এমন হয়ে গেছে যেখানে মোবাইল ফোন ছাড়া কোথাও যাওয়া বলতে গেলে অসম্ভব। কিন্তু টেক্সট, ইমেইল, সোশ্যাল মিডিয়া, অন্যান্য মাধ্যম থেকে আসা ক্রমাগত নোটিফিকেশন অনেকটাই বিরক্তিকর হতে পারে। কিন্তু আপনারা চাইলে ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর ব্যবহার করে নোটিফিকেশনের এই বিরক্তিকর অবস্থা থেকে বেরিয়ে এসে নিজের কাজ ঠিকমত সম্পাদন করতে পারেন। এই বিষয়ে আপনারা বিস্তারিত জানেন কি ? আমাদের আজকের এই নিবন্ধে ডু নট ডিস্টার্ব মোড কি, এর কাজ কী, সুবিধা, কিভাবে ব্যবহার করতে হয় ইত্যাদি এসব বিষয়ে বিষয়ে বিস্তারিত জানবেন।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড কী?

ডু নট ডিস্টার্ব মোড বলতে সাইলেন্ট মোড এর একটি উন্নত সংস্করণ বলা যেতে পারে। তবে এই সাইলেন্ট মোডটিকে সুবিধামত কাস্টমাইজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। অর্থাৎ সবকিছু বন্ধ রাখার পরেও নোটিফিকেশন কাস্টমাইজেশন এর সর্বোচ্চ সুযোগ রয়েছে। এটা অনেক সময় সংক্ষেপে DND (Do Not Disturb) হিসেবেও পরিচিত ।

যে সব বন্ধুরা মোবাইল ফোনে আসা নোটিফিকেশন এর জন্য কাজের গতি হারাতে চান না, তাদের জন্য বেশ উপকারে আসতে পারে ডু নট ডিস্টার্ব মোডটি। এছাড়াও ঘুমানোর সময় অপ্রয়োজনীয় নোটিফিকেশন এর বিরক্ত কর অবস্থা থেকে বাঁচতে ডু নট ডিস্টার্ব মোড ব্যবহার করতে পারেন। পরীক্ষা, জরুরি মিটিং, কাজ, ইত্যাদি ক্ষেত্রে ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর ব্যবহার তো আছেই।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর সুবিধা

ডু নট ডিস্টার্ব মোড কি কি কাজে আসতে পারে, সেই বিষয়ে আপনাদের কোনো প্রশ্ন থাকলে তার উত্তর পাবেন আমাদের এই নিবন্ধে। যেমনঃ আপনারা কোনো কনফারেন্স বা মিটিংয়ে আছেন, সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ফরমালিটি বজায় রাখতে সাইলেন্ট মোড এর চেয়ে ডু নট ডিস্টার্ব মোড অধিক কার্যকর।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর জন্য নির্দিষ্ট কনটাক্ট এর প্রযোজ্য নিয়মসমূহ অফ রাখা যায়। অর্থাৎ অপ্রয়োজনীয় কল বা নোটিফিকেশন বন্ধ রেখে জরুরি কাজে ফোকাস রাখার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়েও খেয়াল রাখা যায়। এছাড়াও ফ্রিকুয়েন্সি-ভিত্তিক অপশন এর ক্ষেত্রে পরপর কয়েকবার কল আসলে সেক্ষেত্রে রিং বাজার অপশন নির্বাচন করা যেতে পারে। অর্থাৎ সাইলেন্ট মোড এর এডভান্সড ব্যবহার করা যাবে ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর সাহায্যে।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে Do Not Disturb মোড ব্যবহার করার নিয়ম

অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই ও এর আগের কিছু ভার্সনগুলোতে ডু নট ডিস্টার্ব মোড কিছুটা আলাদা দেখতে। অ্যান্ড্রয়েড ৬ ও এর পরবর্তী ভার্সনগুলোতে এই মোড রয়েছে, তবে তা কিছুটা ভিন্ন। আবার স্মার্টফোনভেদে যেহেতু অ্যান্ড্রয়েড স্কিন ভিন্ন হয়ে থাকে, তাই এই মোডের অবস্থান ও ভিন্ন হতে পারে।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড চালু করার সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে গুলো হচ্ছে উপর থেকে স্লাইড ডাউন করে কুইক-অ্যাকসেস নোটিফিকেশন সেন্টার থেকে DND মোডটি অন করা। অধিকাংশ অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের কুইক-অ্যাকসেস সেটিংসে এই ধরনের অপশন গুলো থেকে থাকে। আপনাদের ফোনে যদি DND খুঁজে পাওয়া না যায় , তবে নিচে বা পাশে সোয়াইপ করে খুঁজে নিতে পারেন। তবুও খুঁজে পাওয়া না গেলে Edit অপশনে ট্যাপ করে Do Not Disturb টাইলটি এড করে নিন।

এছাড়া সরাসরি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সেটিংস থেকে ডু নট ডিস্টার্ব মোডটি ব্যবহার করতে পারবেন। অধিকাংশ অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ডু নট ডিস্টার্ব ডিস্টার্ব মোড Sounds মেন্যুতে পাওয়া যায়। আবার কিছু অ্যান্ড্রয়েড ফোনে Notifications মেন্যুতেই Do Not Disturb মোড দেওয়া থাকে। সরাসরি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সেটিংসে এ প্রবেশ করে সার্চ করেও এই মোড খুঁজে বের করতে পারবেন।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ডু নট ডিস্টার্ব মোড অনেকটা কাজে আসতে পারে। উল্লেখিত এই যে সকল ফিচার নিজের মত কাস্টমাইজেশন করতে পারলে নিজের সুবিধামত অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস এর ডু নট ডিস্টার্ব মোড কাস্টমাইজ করা যাবে। Do Not Disturb মোড এর সেটিংস সরাসরি অ্যাকসেস করা সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে কুইক সেটিংসে থাকা আইকনে ট্যাপ করে ধরে রাখা। এরপর সরাসরি সকল সেটিংস দেখতে পাবেন।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড শিডিউল করার নিয়ম

Do Not Disturb মোড এর জন্য নির্দিষ্ট একটি শিডিউল করা যায়। ধরে নিন আপনারা ঘুমানোর সময় ডু নট ডিস্টার্ব মোড চালু রাখতে চান আবার সকালে ঘুম থেকে উঠে এই মোড অফ হয়ে যাবে এমন সেটিংস করতে চান। তাহলে শিডিউল ফিচার বেশ কাজে আসতে পারে। এই মোডের সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত কারণ হচ্ছে এটি। তবে এই মোড ব্যবহার করে বেশ অসাধারণ সব কাজ করা সম্ভব।

ধরেন আপনারা নিয়মিত পড়তে বসার সময় DND মোড চালু হয়ে যাবে ও ২ঘন্টা পর বন্ধ হয়ে যাবে, তাহলে আপনারা মনোযোগ দিয়ে পড়তে পারছেন। এছাড়া আপনাদের কাজের সময়ে এই মোড শিডিউল করতে পারেন। ডু নট ডিস্টার্ব মোডের শিডিউল ফিচারটি ব্যাক্তিভেদে বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করতে পারে।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর সেটিংসে প্রবেশ করে Schedule অপশনে ট্যাপ করলে DND মোড চালু ও বন্ধ হওয়ার সময় সেট করতে পারবেন। আবার এই শিডিউলটি কখন রিপিট হবে, তার জন্য নির্দিষ্ট দিন ও সেট করার সুযোগ রয়েছে সেখানে। Notify about calls / Notify about repeat calls ফিচার ব্যবহার করে জরুরি মুহুর্তে কল রিসিভ করার অপশন রাখতে পারেন।

আইফোনে ডু নট ডিস্টার্ব মোড চালু করার নিয়ম

আইওএস ১৫ (ও আইপ্যাড ওএস ১৫) চালিত ডিভাইসসমূহে ডু নট ডিস্টার্ব মোড চালু করার জন্য:

  • সেটিংসে প্রবেশ করে Focus অপশনে ট্যাপ করতে হবে।
  • Do Not Disturb অপশনে ট্যাপ করতে হবে।
  • প্রয়োজন অনুযায়ী নোটিফিকেশন অপশন সিলেক্ট করতে হবে।

আইওএস ১৪ (ও আইপ্যাড ওএস ১৪) চালিত ডিভাইসে ডু নট ডিস্টার্ব মোড চালু করার জন্য:

  • সেটিংসে প্রবেশ করতে হবে।
  • Do Not Distrub অপশনে ট্যাপ করতে হবে।
  • ডু নট ডিস্টার্ব মোড চালু করতে হবে এছাড়া ম্যানুয়ালি এই মোড শিডিউল করতে পারবেন

হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ ব্যাকাপ নেওয়ার উপায়

ডু নট ডিস্টার্ব মোড এর ক্ষেত্রে কিছু অপশন রয়েছে, যাতে সুবিধামত এলার্ট, কল ও নোটিফিকেশন পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। যেমনঃ

  1. Silence: এই অপশন নির্বাচন করলে সকল কল ও নোটিফিকেশন সাইলেন্ট হয়ে যাবে
  2. Allow Calls From: কোনো নির্দিষ্ট কন্টাক্ট বা কনটাক্টসমূহ থেকে কল রিসিভ এর অপশন সিলেক্ট করা যাবে
  3. Repeated Calls: কেউ তিন মিনিটের মধ্যে দুইবার কল করলে দ্বিতীয় কলটির ক্ষেত্রে রিং সাইলেন্ট থাকবেনা

আপনারা কি ডু নট ডিস্টার্ব মোড ব্যবহার করেন? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.