travelসংবাদ

বাংলাদেশের কয়টি এয়ারপোর্ট আছে, বাংলাদেশের বিভিন্ন বিভাগের এয়ারপোর্ট এর নাম

বাংলাদেশের কয়টি এয়ারপোর্ট আছে
আসসালামুয়ালাইকুম/আদাব আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন সুস্থ আছেন । আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি ।চলুন বন্ধুরা আজকে আমরা বাংলাদেশের এয়ারপোর্ট গুলো জেনে নিই এবং বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এয়ারপোর্ট সম্পর্কে আলোচনা করি। আমাদের বাংলাদেশে অনেক এয়ারপোর্ট আছে যাদের মধ্যে একটি ইয়ারপোর্ট আলাদা আলাদা কাজে ব্যবহৃত হয়। ঢাকা থেকে এয়ারপোর্ট ভাড়া,ও তাদের কাজগুলো বলব আপনাদের কে ।আজকে এইসব বিষয়গুলোর উপর ভিত্তি করে করে আলোচনা করব।
বাংলাদেশের এয়ারপোর্ট গুলির সম্পর্কে আগ্রহী ব্যক্তি গুলো খূব মনযোগ সহকারে পড়বেন কারণ আপনাদের জন্য এই পোস্টটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। চলুন আমরা বাংলাদেশের এয়ারপোর্ট গুলো সম্পর্কে জানি।বাংলাদেশের কয়টি এয়ারপোর্ট আছে

বাংলাদেশে যে এয়ারপোর্ট আছে সেগুলো হলো

শমশেরনগর এয়ারপোট, ওসমান গনি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট, লালমনিরহাট এয়ারপোর্ট, সৈয়দপুর এয়ারপোর্ট, সিরাজগঞ্জ এয়ারপোর্ট, বগুড়া এয়ারপোর্ট, ঈশ্বরদী এয়ারপোর্ট, শাহ মখদুম এয়ারপোর্ট, খানজাহান আলী এয়ারপোর্ট, যশোর ইয়ারপোর্ট, টাঙ্গাইল এয়ারপোর্ট, হযরত শাহজালাল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট, চকরিয়া এয়ারপোর্ট, দোহাজোরী এয়ারপোর্ট, কক্সবাজার এয়ারপোর্ট, কুমিল্লা এয়ারপোর্ট, বরিশাল এয়ারপোর্ট, পটুয়াখালী ইয়ারপোর্ট, শাহ আমানত ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট।বাংলাদেশের কয়টি এয়ারপোর্ট আছে
বরিশাল বিভাগের দুইটি এয়ারপোর্ট আছে একটি বরিশাল এয়ারপোর্ট অপরটি পটুয়াখালী এয়ারপোর্ট। ডিস্ট্রিক্ট লাইটগুলো পরিচালনা করার জন্য বরিশাল এয়ারপোর্ট এবং কমার্শিয়াল ফ্লাইট পরিচালনা করার জন্য পটুয়াখালী এয়ারপোর্ট ব্যবহার করা হয়। ঢাকা থেকে বরিশালের ভাড়া সাধারণত 2500 টাকা থেকেই শুরু। বরিশাল এয়ারপোর্ট কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের কাছাকাছি অবস্থানরত হওয়ার জন্য টুরিস্টদের কথা বিবেচনায় এয়ারপোর্ট তৈরি কাজ চলছে। বাংলাদেশের এমার্জেন্সি বিমান মাঝে মাঝে ল্যান্ডিং করা হয় এয়ারপোর্টে।

চট্টগ্রাম বিভাগের এয়ারপোর্ট সমূহ

সম্নথ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট চট্টগ্রাম বিভাগে অবস্থিত। এটি বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। চট্টগ্রাম জেলার পতেঙ্গা শহরে আমানত ইন্টারন্যাশনাল ইয়ারপোর্ট অবস্থিত। বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা হওয়ার পর হাজার 1972 সালে ঢাকা-চট্টগ্রাম ডেমোক্রেটিক ফ্লাইট এর মাধ্যমে বিমানবন্দর চালু হয়। হাজার 1990 সালে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হিসেবে ঘোষণা করা হয় বিমানবন্দরটিকে। বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর রয়েছে শাহ আমানত ইন্টারন্যাশনাল ইয়ারপোর্ট। এখন আমরা কক্সবাজার এয়ারপোর্ট ডোমেস্টিক ফ্লাইট সম্পর্কে আলোচনা করব। এই এয়ারপোর্ট ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট করার পরিকল্পনা চলছে। কুমিল্লা এয়ারপোর্ট এয়ারপোর্ট চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে অবস্থিত। তবে এখানে কোন ফ্লাইট ল্যান্ড হয় না। বর্ডার গার্ড সীমানার কাছে হওয়ার কারণে এই বিমানবন্দরটিকে বন্ধ করে মিলিটারি হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়া এখানে দোহাজারী একটি ইয়ারপোর্ট আছে। 1944 থেকে 1945 সালের যুদ্ধে ব্যবহার করা হয়েছিল। চকরিয়া এয়ারপোর্টটি ও মিলিটারি এয়ারপোর্ট হিসেবে ব্যবহার হতো।

খুলনা বিভাগের এয়ারপোর্ট সমূহ

যশোর এয়ারপোর্ট হচ্ছে খুলনা বিভাগের সচরাচর ব্যবহারকারী এয়ারপোর্ট। সাধারণত ঢাকা থেকে 2800 টাকা ভরা হয়ে থাকে। মাঝে মাঝে এয়ারপোর্টটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে কাজ করে। খুলনা বিভাগের আরো একটি এয়ারপোর্ট এর নাম খানজাহান আলী এয়ারপোর্ট। এটি বাগেরহাট জেলায় অবস্থিত।

রাজশাহীর এয়ারপোর্ট সমূহ

শাহ মখদুম এয়ারপোর্ট ডোমেস্টিক ফ্লাইট ব্যবহার করা হয় রাজশাহী বিভাগের শাহ মখদুম এয়ারপোর্টৈ। বিভিন্ন সেলাই অ্যাকাডেমি ট্রেনিং এখানে করানো হয়। ঢাকা থেকে রাজশাহী ভাড়া মোটামুটি 2600 টাকা। এছাড়া এখানে ঈশ্বরদী এয়ারপোর্ট আছে কিন্তু সেটা পরিত্যক্ত এই বিভাগে সিরাজগঞ্জ ও বগুড়া নামের দুটি ইয়ারপোর্ট আছে হেয়ার হয়ে গেছে অপর টির কার্যক্রম আপাতত বন্ধ।

রংপুর বিভাগের এয়ারপোর্ট সমূহ

রংপুর বিভাগের এয়ারপোর্ট হতে সৈয়দপুর এয়ারপোর্ট। ঢাকা থেকে এর ভাড়া 2800 টাকা। সৈয়দপুর এয়ারপোর্ট নীলফামারী জেলায় অবস্থিত। এছাড়াও লালমনিরহাট এয়ারপর্ট নামে একটি এয়ারপোর্ট আছে এই বিভাগে। এখানেই মিলিটারিদের কাজে ব্যবহৃত হয়। লিয়ন 1965 সালের যুদ্ধের সময় ঠাকুরগাঁও এয়ারপোর্ট ব্যবহৃত ছিল কিন্তু দেশ স্বাধীনের পর 1940 সালে বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

সিলেট বিভাগের এয়ারপোর্ট সমূহ

এবার প্রথমেই ওসমানী ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট এর নাম আসবে। 2002 সালে এই এয়ারপোর্ট থেকে ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট ঘোষণা করা হয়। ঢাকা থেকে এর ভাড়া 2500 টাকা। এছাড়া শমশেরনগর নামে একটি এয়ারপোর্ট আছে কিন্তু সীমান্ত নগরের কাছে বলে এয়ারপোর্টে পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে।
আশা করবো আমার পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে। আপনাদের কেমন লাগলো পোস্টটি অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন ততক্ষণে সুস্থ থাকবেন ভালো থাকবেন।
পরিশেষে সম্মানিত ভিজিটরস বন্ধুরা আপনাদের যদি আমাদের এই নিবন্ধ ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের এই ওয়েবপেজটি শেয়ার করে অন্যদের ও জানাবেন আমরা একান্তই চেষ্টা করব আপনাদের প্রয়োজনীয় নিবন্ধন আপনাদের কাছে পৌঁছে দিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.