ফোন রিভিউ

ভিভো এক্স৮০ ফোন এলো 120Hz স্ক্রিন ও ৫জি নিয়ে

সম্মানিত পাঠক বন্ধুরা যারা ভিভো এক্স৮০ ফোন নেওয়ার কথা ভাবছেন তাদের জন্য সুখবর। দেশের প্রিমিয়াম স্মার্টফোন মার্কেট দখলের লক্ষ্যে ভিভো এক্স৮০ ফোনটি নিয়ে এসেছে ভিভো। কিছুদিন আগেও ভিভো এক্স৮০ প্রো মডেলের সাথে লঞ্চ করা হয়েছে এই মডেলটি। ভিভো এক্স সিরিজের ফোনগুলো সাধারণত তাদের চমৎকার ক্যামেরার জন্য পরিচিত। তাহলে বন্ধুরা চলুন জেনে নেওয়া যাক সদ্য মুক্তি পাওয়া ভিভো এক্স৮০ ফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

ডিজাইন ও ডিসপ্লে

প্রিয় পাঠক বন্ধুরা ভিভো এক্স৮০ সিরিজের ফোনগুলোর ডিজাইনে নতুনত্ব আসলেও এই ডিজাইন আসলে সবার পছন্দ না ও হতে পারে। ফোনের পেছনে বিশাল ক্যামেরা প্যানেলে স্থান পেয়েছে ফোনের ক্যামেরাগুলো ও ফ্ল্যাশ মডিউল। ফোনের ব্যাক পার্টের প্রায় অর্ধেক অংশ‌ই দখল করে নিয়েছে এই ক্যামেরা প্যানেল। ফোনের সামনে রয়েছে পাঞ্চ-হোল ডিসপ্লে।

ভিভো এক্স৮০ ফোনটিতে ৬.৭৮ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে যা ১২০হার্জ রিফ্রেশ রেট সাপোর্টেড। ৮৯.৪% স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও’র এই ফোনের ডিসপ্লে সর্বোচ্চ ১৫০০নিটস পর্যন্ত ব্রাইটনেস সাপোর্ট করে। এছাড়া ও ওয়াইডভাইন এল১ সাপোর্ট করে এই ডিসপ্লে যার ফলে ফুল এইচডি প্লাস কনটেন্ট দেখতে পারবেন ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলোতে।

পারফরম্যান্স

এছাড়াও বন্ধুরা ভিভো এক্স৮০ ফোনটিতে প্রসেসর হিসেবে থাকছে মিডিয়াটেক এর ডাইমেনসিটি ৯০০০ প্রসেসর। তবে মিডিয়াটেক এর প্রসেসর দেখে ঘাবড়ে যাওয়ার কোনো কারণ নেই। মিডিয়াটেক এর এই নতুন প্রসেসর এ প্রায় কোয়ালকম এর স্ন্যাপড্রাগন জেন ১ এর সমান পারফরম্যান্স প্রদান করে। আরও ফোনটিতে মিলবে অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক ফানটাচ ওএস ১২ এর দেখা । ফোনটির জন্য তিন বছরের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট ও চার বছরের সিকিউরিটি ও আপডেট প্রদান করার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছে ভিভো।
ফোনটিতে ১২জিবি র্যাম ও ২৫৬জিবি স্টোরেজ থাকছে। মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৯০০০ এর কল্যাণে ভিভো এক্স৮০ তে রয়েছে ৫জি সাপোর্ট। ফোনটিতে ডুয়াল স্টিরিও স্পিকার এর পাশাপাশি আরো রয়েছে সেকেন্ডারি নয়েস ক্যান্সেলেশন মাইক। মজার ব্যাপার হলো এই ফোনটিতে আইআর ব্লাস্টার রয়েছে যা দিয়ে টিভি, এসি, ফ্রিজের মত বিভিন্ন স্মার্ট ডিভাইস নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

ক্যামেরা

বন্ধুরা ভিভো এক্স৮০ ফোনটিতে রয়েছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ। এছাড়াও এটি আপনাদের জন্য একটি ভাল ক্যামেরা মোবাইল হতে পারে। ফোনটির প্রাইমারি ৫০মেগাপিক্সেল সেন্সর অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন সাপোর্ট করে এছাড়াও ১২মেগাপিক্সেল এর টেলিফটো লেন্স রয়েছে যা ২ক্স অপটিক্যাল জুমকে সাপোর্ট করে। ভিভো ফোনটিতে একটি ১২মেগাপিক্সেল এর আলট্রা-ওয়াইড লেন্স রয়েছে। ফোনের ফ্রন্টে রয়েছে ৩২মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

আবার ভিভো এক্স৮০ এর রিয়ার ক্যামেরা দ্বারা সর্বোচ্চ ৪কে ৩০এফপিএস ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরা দ্বারা আপনারা সর্বোচ্চ ১০৮০পি ৬০এফপিএস ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। ভিভো এক্স সিরিজের অন্যান্য ফোনগুলোর ক্যামেরার মত বেশ অসাধারণ ভিভো এক্স৮০ এর ক্যামেরা। বন্ধুরা অসাধারণ ক্যামেরা হার্ডওয়্যার এর পাশাপাশি এই ফিচারে ভরা ক্যামেরা সফটওয়্যার এই ফোনটিকে বাজারের অন্য ফোন থেকে বেশ আলাদা করবে।

ব্যাটারি

ভিভো এক্স৮০ স্মার্টফোনটিতে ৪,৫০০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি রয়েছে যা অসাধারণ কিছুই নয়। তবে এই ফোনটির একটি অন্যতম আকর্ষণীয় অংশ ৮০ওয়াট চার্জার । ফোনটি ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট না করলেও বক্সে দেওয়া ৮০ওয়াট ফাস্ট চার্জার সে অভাব পূরণ করে।

দাম

ভিভো এক্স৮০ টি বাংলাদেশে পাওয়া যাবে ৭৬,৯৯০ টাকায়। বন্ধুরা আপনারা যদি এই দামে “ভিভো” ফোনের খোঁজে থাকেন, তাহলে এই ফোনটি আপনাদেরকে হতাশ করবেনা। তবে অন্য ব্র্যান্ডের ফোন নিয়ে যদি আপনাদের কোনো সমস্যা না থাকে, তাহলে এই দামে স্যামসাং, রিয়েলমি, শাওমি, ও অ্যাপলের ফোন ও পেয়ে যাবেন। এছাড়া একদম এন্ট্রি লেভেলের ভিভো ফোন লাগলে দেখতে পারেন ভিভো Y01 ফোনটি।

একনজরে ভিভো এক্স৮০ ফোনটির স্পেসিফিকেশন কালেকশনঃ

বন্ধুরা আপনাদের কাছে কেমন লেগেছে ভিভো এক্স৮০ স্মার্টফোন? ফোনটি সম্পর্কে আপনাদের মতামত আমাদের কে অবশ্যই জানাবেন কমেন্ট সেকশনের মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.