ফোন রিভিউ

ভিভো Y33s ফোন এলো লাখ টাকার পুরস্কার নিয়ে 2022

ভিভো Y33s ফোন: বাংলাদেশে বর্তমান বাজারে ভিভো লঞ্চ করেছে তাদের ভিভো Y33s স্মার্টফোন। অফিসিয়ালি এই প্রথমবারের মতো দেশের বাজারে ভিভো বিক্রি করতে যাচ্ছে এই স্মার্টফোনটি। দেশের বাইরেও এই ফোনটির ৫জি মডেলও লঞ্চ হয়েছে সম্প্রতি। বাংলাদেশে যেহেতু এখন পর্যন্ত বাণিজ্যিকভাবে ৫জি চালু হয়নি, তাই আপাতত ফোনটির ৪জি ভার্সন নিয়েই আসছে ভিভো। অবশ্য ৪জি ভার্সনের দাম ৫জি ভার্সনের তুলনায় কিছুটা হলেও কম হবে।

ভিভো ওয়াই ৩৩এস ফোনটি একটি মধ্যম বাজেটের একটি স্মার্টফোন। যারা কিছুটা কম বাজেটের মধ্যে আধুনিক সুযোগ সুবিধা চান তাদের জন্য এই ফোনটি মানানসই হতে পারে। আপনারা যদি অনেক টাকা খরচ না করে মোটামুটি বাজেটের মধ্যে শক্তিশালী একটি ফোন নিতে চান তাহলে ভিভো Y33s ফোনটি আপনাদের পছন্দ হওয়ার কথা।

শুধু তা-ই নয়, নতুন লঞ্চ করা এই ফোনটির সাথে লাখ লাখ টাকার পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ভিভো। ফোনটি কিনে ক্রেতা বন্ধুরা পেতে পারেন তিনটি মূল পুরস্কারের মধ্যে যেকোনো একটি।

এর মধ্যে প্রথম পুরস্কার হচ্ছে ৩৩ হাজার টাকা। দ্বিতীয় পুরস্কার ভিভো Y33s ফোনের দামের ওপর ৫০% ডিসকাউন্ট। আর তৃতীয় পুরস্কার হচ্ছে একটি ব্যাকপ্যাক। ভাগ্যবান ক্রেতা বন্ধুরা পাবেন এসব পুরস্কার। আরো আছে মোবাইল ডাটা অফার (৩৩জিবি, ১৫জিবি, ১২জিবি)।

সব মিলিয়ে অনেককে পুরস্কার দেওয়ার মতো, যার সর্বমোট মূল্য লাখ টাকার বেশি হবে, ভিভোর ঘোষণা থেকে এমনই বোঝা যাচ্ছে।

এবার বন্ধুরা চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক ভিভো Y33s ফোনটির বিস্তারিত ফিচার সম্পর্কে:

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৫৮ ইঞ্চি এলসিডি, ২৪০৮ x ১০৮০পি (ফুলএইচডি+)
  • ্যামঃ ৮জিবি (ভার্চুয়াল র্যাম হিসেবে আরও ৪জিবি যোগ করা যাবে)
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
  • ওজনঃ ১৮২ গ্রাম
  • পুরুত্বঃ ৮মিলিমিটার
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প
  • চার্জিংঃ ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং
  • মূল ক্যামেরাঃ ৫০ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬ মেগাপিক্সেল
  • ফিঙ্গারপ্রিন্টঃ সাইড মাউন্টেড ওএসঃ এন্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক ভিভো ফানটাচ ওএস ১১

ভিভো Y33s স্মার্টফোন ব্ল্যাক এবং গোল্ড এই দুই রকম কালারে বাংলাদেশে পাওয়া যাবে । যদিও দেশের বাইরে এর নীলচে একটি কালার ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যায়। ফোনটির দাম ২০ হাজার ৯৯০ টাকা।

ভিভো স্মার্টফোনটি অনলাইন শপ থেকে এখনই প্রি-অর্ডার করা যাচ্ছে। সাধারণত প্রি-অর্ডারের এক সপ্তাহের মধ্যে এই ফোনগুলো ভিভো ব্র্যান্ড শপেও পাওয়া যায়। তাই আপনারা ফোনটি কিনতে চাইলে নিকটস্থ ভিভো শোরুমে যোগাযোগ করতে পারেন।

ভিভো Y33s ফোনটি দাম অনুযায়ী কেমন মনে হচ্ছে ? আর হ্যাঁ, ভাগ্যবান হলে আপনারা হয়ত পেয়ে যেতে পারেন ক্যাশ প্রাইজ অথবা ৫০% ডিসকাউন্ট!

Leave a Reply

Your email address will not be published.