সংবাদ

সম্প্রতি কম দামের আইফোন আনতে পারে অ্যাপল

সম্মানিত ভিজিটরস বন্ধুরা আপনারা কি জানেন মার্চের ৮ তারিখ হয়ে গেছে এই বছরের প্রথম অ্যাপল ইভেন্ট। বিভিন্ন ধরনের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে এই যে কম দামে বাজেট আইফোন ও একটি আপডেটেড আইপ্যাড এর দেখা মিলবে এই বছরের প্রথম অ্যাপল ইভেন্টে। ধারণা করা হচ্ছে একটি কম দামি আইফোন আনবে অ্যাপল, যাতে থাকবে ৫জি।

সম্প্রতি অ্যাপলের বিভিন্ন আইফোন লাইনআপে ৫জি কানেকটিভিটি যুক্ত হওয়ার পর ৫জি নেটওয়ার্কিং সম্প্রসারণে গতিটি আসে। অ্যাপল এর এই বাজেটটি ৫জি আইফোন যদি মার্চের ইভেন্টে ঘোষণা করা হয়, তাহলে ৫জি ইন্টারনেটের ব্যবহার আরো বাড়বে।

অক্টোবর মাসেই নতুন ম্যাকবুক প্রো এর পর মার্চের ইভেন্ট হয়ে যাচ্ছে অ্যাপল এর সবচেয়ে বড় ইভেন্ট শো। অ্যাপল এর সাম্প্রতিক লঞ্চসমূহের মত আসন্ন লঞ্চ ইভেন্ট ও অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। চলমান মহামারীর কারণে এই ধরনের অনলাইন ইভেন্টে নতুন প্রোডাক্ট লঞ্চ করার জন্য ট্রেন্ড বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোনগুলোর সাপ্লাই-চেইন নিয়ে অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো বেশ সমস্যায় পড়লেও অ্যাপল এর গ্রোথ কিন্তূ থেমে থাকেনি বিগত সময়গুলোতে। ২০২২সালে উল্লেখযোগ্য হারে লাভের মুখ দেখেই চলেছে অ্যাপল, তা জোর গলায় বলা যায়। মার্চ এর ইভেন্ট ও বছরের শেষ দিকের লঞ্চ ইভেন্ট, এই দুই প্রকারের ইভেন্টে এই বছরের নতুন অ্যাপল প্রোডাক্টগুলোর দেখা মিলছে।

তারমধ্যে আসন্ন লঞ্চ ইভেন্টের এখনো এক মাস সময় বাকি, এর মধ্যেই আবার অ্যাপল এর পরিকল্পনা বদলে যেতে পারে প্রোডাকশন ডিলে বা অন্য কোনো পরিবর্তনের কারণে। অ্যাপল এর একজন কর্মকর্তার কাছে এই বিষয়ে কোম্পানিটির পরিকল্পনা জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনো ধরনের মন্তব্য করাকে এড়িয়ে যান।

ধারণা করা যায় ২বছর পূর্বেই মুক্তি পাওয়া আইফোন এসই মডেলের আপগ্রেড হতে চলেছে আসন্ন সেই কমদামি আইফোন। এই আইফোনটিতে থাকবে ৫জি নেটওয়ার্ক সুবিধা ও আইফোন এসই এর চেয়ে উন্নত ক্যামেরা ও অনেক ভালো মানের প্রসেসর। তবে ধারণা করা হয় ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে মুক্তি পাওয়া আইফোন এসই এর মত একই ডিজাইন রয়েছে এই নতুন বাজেট আইফোনে।

আবার অন্যদিকে নতুন আইপ্যাড হচ্ছে আইপ্যাড এয়ার মডেল এর একটি আপডেটেড সংস্করণ, যাতে দ্রুততর প্রসেসর ও ৫জি সুবিধা থাকবে। ইতোমধ্যেই অ্যাপল এর ডিজাইন করা চিপসেট ব্যবহার করে তৈরী ম্যাক নিয়ে কাজ চলমান বলে জানা গিয়েছে। হতে পারে নতুন চিপযুক্ত এই ম্যাক মার্চের লঞ্চ ইভেন্টে ঘোষণা করছে অ্যাপল।

আরো নতুন ডিভাইসের পাশাপাশি আইওএস ১৫.৪ মুক্তি পেয়েছে মার্চ মাসে। এই সফটওয়্যারটি আপডেটে যুক্ত হয়েছে মাস্ক পড়া অবস্থায় ফেস আইডি সাপোর্ট যা ব্যবহার করে মাস্ক পরা থাকা অবস্থাতেও আইফোন ও আইপ্যাড ডিভাইসসমূহ আনলক করা যাবে। আইওএস এর এই নতুন ভার্সনে রয়েছে নতুন ইমোজি। আরো রয়েছে “ইউনিভার্সাল কন্ট্রোল” নামে একটি ফিচার যা একই কিবোর্ড ও ট্র্যাকপ্যাড ব্যবহার করে একাধিক আইপ্যাড ও ম্যাক ডিভাইস কন্ট্রোল করতে সাহায্য করবে।

মার্চ ইভেন্টের পর জুন মাসে “বার্ষিক ওয়ার্ল্ডওয়াইড ডেভলপারস কনফারেন্স” অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, যেখানে আইফোন, আইপ্যাড, ম্যাক ও অ্যাপল ওয়াচ এর জন্য সফটওয়্যার আপডেট ঘোষণা করা হবে। অভিজ্ঞরা ধারণা করছে একাধিক কিনোট ইভেন্টে আইফোন ১৪ ও নতুন ম্যাক ঘোষণা করা হবে।
২০২২ সালের লাইন-আপে আবার ও থাকবে নতুন আইম্যাক ও ম্যাকবুক প্রো ডেস্কটপস, নতুন ডিজাইনের ম্যাকবুক এয়ার, আপডেটেড লো-এন্ড ম্যাকবুক প্রো, তিনটি অ্যাপল ওয়াচ, চারটি আইফোন ১৪ মডেল ও নতুন এয়ারপড। এছাড়াও এক ট্যাপে আইফোন ব্যবহার করে ক্রেডিট কার্ড দ্বারা পেমেন্ট করা যাবে এমন ফিচার আনার কথাও ভাবছে অ্যাপল যা এই বছরেই দেখা মিলতে পারে।
এসব চিরাচরিত অ্যাপল প্রোডাক্ট লাইন-আপের পাশাপাশি একটি হাই-এন্ড মিক্সড রিয়েলিটি হেডসেট নিয়ে কাজ করছে অ্যাপল যা ২০২৩ সালে বাজারে আসতে পারে। এই প্রোডাক্ট ২০২২ সালের শেষের দিকে বাজারে আনার পরিকল্পনা থাকলেও ডেভলপমেন্টে বিভিন্ন বাধার কারণে তারিখ পিছিয়ে ও দিতে পারে অ্যাপল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.