টিপস

হারানো আইফোন বন্ধ থাকলেও যেভাবে খুঁজে পেতে পারেন

সম্মানিত ভিজিটরস আপনাদের আইফোন হারিয়ে গেছে কিভাবে খুঁজবেন সেই নিয়ে চিন্তিত? ‌বর্তমানে আইফোন বন্ধ থাকা অবস্থায় খুঁজে বের করার ফিচার ফাইন্ড মাই সার্ভিসে যোগ হয় আইওএস ১৫ তে। আইফোনের কিছু কিছু মডেলের বন্ধ থাকা আইফোন হারিয়ে গেলে বা খুঁজে পাওয়া না গেলে সেজন্য “ফাইন্ড মাই” সার্ভিস ব্যবহার করে সেগুলো খুঁজে বের করতে পারবেন। বন্ধুরা এই নিবন্ধে বন্ধ থাকা হারানো আইফোন খুঁজে পাওয়ার উপায় সম্পর্কে আপনারা বিস্তারিত জানবেন।

আগে থেকে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা

অনেক আইফোন ইউজার বন্ধুরা ফেস আইডি বা টাচ আইডি ব্যবহার করাকে অপ্রয়োজনীয় মনে করেন। কিন্তু এটি একটি সম্পূর্ণরূপে ভুল ধারণা। আইফোনে পাসকোড সেট করে ফেস আইডি বা টাচ আইডি ব্যবহার ডিভাইসে থাকাটা সকল ব্যক্তিগত প্রয়োজনীয় তথ্যের সুরক্ষা নিশ্চিত করে থাকেন।

অনেক বন্ধুরা বলেন, ফোনে কি বা এমন ব্যক্তিগত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকে। ব্যাংকিং অ্যাপস, ব্যাক্তিগত কনভারসেশন, আপনাদের ঘরের ঠিকানা, কনটাক্ট, ইমেইল, ছবি, ভিডিও, ইত্যাদি ব্যক্তিগত তথ্য নয় কি? তাই আপনারা যে ধরণের ব্যবহারকারী হোন না কেনো, আপনাদের আইফোনে পাসকোড ব্যবহার করতে অবশ্যই ভুলবেন না।

আপনাদের ফোন হারিয়ে গেলেও সেক্ষেত্রে ফোনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে এই বাড়তি নিরাপত্তা স্তর। ডিভাইস অনুযায়ী সেটিংস থেকে Face ID & Passcode বা Touch ID & Passcode মেন্যুতে প্রবেশ করে পাসকোড ও টাচ আইডি / ফেস আইডি সেটাপ করতে পারবেন। আগে থেকে ব্যবহার করে না থাকলে শুরুতে কিছুদিন এই বিষয়টি বিরক্তিকর মনে হতে পারে তবে কিছুদিনের মধ্যে এটি ব্যবহারের অভ্যাস হয়ে যায়।

ফাইন্ড মাই আইফোন

পাস‌ওয়ার্ড সেট করার পর আইফোনে “ফাইন্ড মাই” ফিচার চালু আছে কিনা ভালো করে ডাবল চেক করে নিতে হবে। ফিচারটি অন আছে কিনা তা একাধিকবার চেক করে নেওয়া অন্যতম পন্থা।
আপনাদের আইফোন এর সেটিংস অ্যাপে প্রবেশ করে Find My > Find My iPhone মেন্যুতে প্রবেশ করে ফাইন্ড মাই আইফোন ফিচারটি চালু করে দিতে হবে। এছাড়াও Find My network ও Send Last Location ফিচার দুইটিও চালু করে করতে হবে।
আপনারা এই ফিচার চালু করলে অ্যাপল এর ডিভাইস দ্বারা তৈরী নেটওয়ার্কে আপনাদের ডিভাইস যুক্ত হয়ে যাবে। আপনারা যদি কখনো আপনাদের আইফোন হারিয়ে ফেলেন ও এটি হারিয়ে গিয়েছে বলে ফাইন্ড মাই অ্যাপের ফিচারটি সিলেক্ট করেন, তাহলে অ্যাপল এর ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে ডিভাইসটি ইন্টারনেটে যুক্ত করা না থাকলেও খুঁজে বের করা সম্ভব হবে।
অ্যাপল এর ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক নেটওয়ার্কের অন্যান্য ডিভাইসের ব্যবহারকারীগণ জানতেও পারবেনা যে তাদের ডিভাইস আপনাদের হারিয়ে যাওয়ার ডিভাইস খুঁজে পেতে সাহায্য করছে। মূলত অ্যাপল এর সকল ডিভাইসের একটি সুন্দর মেলবন্ধন এই ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক।
পূর্বে উল্লেখ করা Send Last Location ফিচারটি আপনাদের আইফোনের ব্যাটারি লো হয়ে গেলে সেক্ষেত্রে ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্কে আপনাদের শেষ লোকেশন যোগ করে দেয়। এতে আপনাদের ফোন খুঁজে না পেলে বা হারিয়ে গেলে খুঁজে পেতে অনেক সহজ হয়।

ফ্যামিলি শেয়ারিং

অ্যাপল এর ফ্যামিলি শেয়ারিং ব্যবহার করলে একই পেইড অ্যাপ একই ফ্যামিলিতে থাকা অন্য ব্যক্তিরাও ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও এই ফিচার ফাইন্ড মাই সার্ভিসের সাথেও সংযুক্ত।
ফ্যামিলি শেয়ারিং চালু করা থাকলে, ফ্যামিলিতে থাকা সকল মেম্বারের অ্যাপল আইডি একই নেটওয়ার্কে যুক্ত থাকে ও সকল ডিভাইসের লোকেশন দেখা যায়। অর্থাৎ আপনাদের ফোন হারিয়ে গেলে বা খুঁজে না পাওয়া গেলে সেক্ষেত্রে ফ্যামিলির অন্য সদস্যকে আপনাদের ডিভাইসের লোকেশন দেখতে বলতে পারবেন।

সাধারণ অভ্যাস

সাধারণত অপরিচিত কোনো স্থানে গেলে কিংবা ট্রাভেল করার সময় ফোনের নিরাপত্তা নিশ্চিতের সেরা উপায় হচ্ছে ফোনের উপর সার্বক্ষণিক এর জন্য নজরে রাখা। ঘরের বাইরে থাকা কিংবা যাওয়া অবস্থায় ফোন নিয়ে সতর্কতা অবলম্বন না করলে যেকেউ খুব সহজেই আপনাদের ফোন নিয়ে পালিয়ে যাওয়া অসম্ভব কিছু নয়। তবে সতর্কতার পরও যদি ফোন হারিয়ে যায় ফাইন্ড মাই আইফোন ফিচার ব্যবহার করে হারানো আইফোন ফিরে পেতে পারেন।

হারানো আইফোন খুঁজে পাওয়ার উপায়

মাই সেবা বিল্ট-ইন প্রতিটি আইওস চালিত ডিভাইসে অ্যাপল এর ফাইন্ড রয়েছে। ফোন হারিয়ে ফেললে বা খুঁজে পাওয়া না গেলে অন্য ফোন বা কম্পিউটার থেকে icloud.com/find ওয়েবসাইইটে ভিজিট করে হারানো ডিভাইস খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করতে পারবেন। হারানো আইফোন খুঁজে পাওয়ার সচরাচর নিয়ম সম্পর্কে আমাদের ডেডিকেটেড নিবন্ধে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন।

লস্ট মোড

আপনাদের হারিয়ে যাওয়া ফোন যদি ফাইন্ড মাই আইফোন ফিচার ব্যবহার করেও খুঁজে পাওয়া না গেলে Lost Mode চালু করে দিতে হবে। আপনাদের ফোনে ইতিমধ্যে সেট করা পাসকোড কাজে আসবে হারানো ফোন আনলক করতে ও লস্ট মোড বন্ধ করতে।

ইতিমধ্যে আপনাদের আইফোনের পাসকোড সেট করা না থাকলে লস্ট মোড এর মাধ্যমে সেটি সেট করতে পারবেন। এছাড়া আপনাদের ফোন নাম্বার ও একটি মেসেজ লিখতে পারবেন যা হারানো ডিভাইস যিনি খুঁজে পেয়েছেন, তিনি হারানো ডিভাইসে দেখতে পাবেন।

আপনাদের যদি লস্ট মোড চালু করা থাকে তাহলে হারানো ফোন লক হয়ে যাবে ও কোনো ধরণের নোটিফিকেশন বা মেসেজ লক স্ক্রিনে প্রদর্শিত হবেনা। এছাড়াও ফোনটির ট্র্যাকিং চালু থাকবে। এর মাধ্যমে ফোন নিকটস্থ কোনো স্থানে থাকলে সেটি খুঁজে বের করতে পারবেন। আবার ভাগ্য ভালো হলে যে ব্যক্তি ফোন খুঁজে পেয়েছেন, তিনি আপনাদের মেসেজ দেখে ফোন ফেরত দিতে পারে।

হারানো আইফোনে লস্ট মোড চালু করার জন্য করতে হবে:

  • অন্য ডিভাইসের ব্রাউজার থেকে icloud.com/find লিংকে প্রবেশ করতে হবে।
  • All Devices থেকে হারানো ডিভাইস সিলেক্ট করতে হবে।
  • এরপর Lost Mode সিলেক্ট করতে হবে।
  • স্ক্রিনে প্রদর্শিত নির্দেশনা অনুসরণ করে লস্ট মোড সেটাপ সম্পন্ন করতে হবে।

বন্ধ থাকা হারানো আইফোন খুঁজে পাওয়ার উপায়

বন্ধ থাকা আইফোন হারিয়ে গেলে খুঁজে পাওয়ার ফিচার সংযুক্ত করা হয় আইওএস ১৫ তে। অর্থাৎ ফোনের চার্জ শেষ হওয়ার পরেও আইফোন হারিয়ে গেলে তা খুঁজে পাওয়া সম্ভব। অথবা কেউ যদি আইফোন চুরি করে বন্ধ করে রাখে তাহলেও সেটা আপনারা খুঁজে পেতে পারেন। আগে থেকে Find My network ফিচার অন করা থাকলে ।

এই ফিচারটি চালু থাকলে হারানো আইফোন বন্ধ থাকলেও লোকেশন ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে দেখা যাবে। এছাড়াও ফ্যামিলি শেয়ারিং এর মাধ্যমেও আইফোন এর লোকেশন দেখা যাবে। তবে এই ফিচারটি বর্তমানে শুধুমাত্র আইফোন ১১, ১২ ও ১৩ সিরিজে পাওয়া যাচ্ছে। আশা করা যায় আইফোন ১৪, ১৫ বা পরের সিরিজগুলোতেও এই ফিচার কাজ করবে।

ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্কে ডিভাইস যুক্ত করতে আইফোনের সেটিংস থেকে আপনাদের নাম ও ছবি প্রদর্শিত বক্সে ট্যাপ করতে হবে। এরপর প্রথমে Find My ও তারপর FInd My iPhone অপশন সিলেক্ট করতে হবে। এরপর Find My network অপশন চালু করে দিতে হবে।

এই ফিচারটি চালু করলে ফোন বন্ধ করার সময় প্রদর্শিত মেন্যুতে “iPhone Findable After Power Off” নোটিফিকেশন দেখতে পাবেন।

এরপর আপনাদের হারানো আইফোন খুঁজে পাওয়ার উপায় নিবন্ধে দেওয়া নিয়ম অনুসরণ করে আপনাদের বন্ধ থাকা আইফোন খুঁজে পেতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.