গ্রামীণফোন

কলরেট বাড়াচ্ছে গ্রামীণফোন, জেনে নিন নতুন কলরেট

গ্রামীণফোন নতুন কলরেট-সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা আবারো গ্রামীণফোন মোবাইলের কল রেট বাড়ানো হচ্ছে। ২৮ আগস্ট থেকে গ্রামীণফোন এর নতুন কল রেট প্রযোজ্য হওয়া শুরু করবে। বন্ধুরা এই পোস্টে আপনারা এখন গ্রামীণফোন এর পরিবর্তিত কল রেট সম্পর্কে বিস্তারিত জানবেন।

বন্ধুরা গ্রামীণফোন সিম এর কল রেট ২৮ আগস্ট থেকে বৃদ্ধি পাবে। অর্থাৎ পূর্বের গ্রামীণফোন কলরেট এর পরিবর্তে নতুন জিপি কলরেট প্রযোজ্য হবে উল্লেখিত তারিখ হতে। মূলত প্রিপেইড প্যাকেজে এই দিন থেকে কল রেট বাড়বে। সকল লোকাল নাম্বারের ক্ষেত্রে ১০ সেকেন্ড পালস প্রযোজ্য হবে। এছাড়াও পোস্ট পেইড সিমেও আবার নতুন কলরেট আসবে ৩১ আগস্ট থেকে যা সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই প্রাপ্ত মেসেজ স্ক্রিনশট আকারে প্রকাশ করেছেন।

গ্রামীণফোন নতুন কলরেট

বন্ধুরা গ্রামীণফোন এর এই নতুন কল রেট যেকোনো লোকাল নাম্বারের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে। ১০সেকেন্ড পালস রেট প্রযোজ্য হবে সকল গ্রামীণফোন প্রিপেইড প্যাকেজে।

বন্ধুরা এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক গ্রামীণফোন সিম এর পরিবর্তিত কল রেট সম্পর্কে। বন্ধুরা এখানে আমরা বুঝার সুবিধার্থে গ্রামীণফোন প্রিপেইড সিম এর প্যাকেজগুলোর প্রতি মিনিটে কল রেট সম্পর্কে জানবো। নিচে উল্লেখিত রেটের মধ্যে ভ্যাট, সম্পূরক শুল্ক, সারচার্জ, অন্তর্ভুক্ত আছে।

পাঠক বন্ধুরা গ্রামীণফোন নিশ্চিত প্যাকেজ এর পরিবর্তিত কল রেট হলো প্রতি মিনিটে ২.১২ টাকা (অর্থাৎ ২ টাকা ১২ পয়সা) জিপি ডিজুস প্যাকেজ এর নতুন কল রেট নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি মিনিটে ২.১৬টাকা (অর্থাৎ ২ টাকা ১৬ পয়সা) এখন গ্রামীণফোন বন্ধু প্যাকেজ এর বর্ধিত নতুন কল রেট হলো প্রতি মিনিটে ২.২৪টাকা (অর্থাৎ এফএনএফ ছাড়া ২ টাকা ২৪ পয়সা) অন্যদিকে জিপি পাবলিক ফোন এর কল রেট এখন থেকে প্রতি মিনিটে ১.৬০টাকা পড়বে (অর্থাৎ ১ টাকা ৬০ পয়সা) গ্রামীণফোন সুপার এফএনএফ এর এর কল রেট নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি মিনিটে ৭২ পয়সা। অন্যদিকে সাধারণ এফএনএফ এর ক্ষেত্রে কল রেট থাকবে প্রতি মিনিটে ১টাকা। তবে সব প্যাকেজে এফএনএফ সেট করা যাবেনা। মূলত বন্ধু প্যাকেজে সবচেয়ে বেশি এফএনএফ সুবিধাটি আছে।

কলরেট বাড়াচ্ছে গ্রামীণফোন

জিপির সবচেয়ে চলমান তিন প্রিপেইড প্যাকেজে প্রতি মিনিটে ৪ পয়সার মত করে বৃদ্ধি পেয়েছে কল রেট (সুপার এফএনএফের ক্ষেত্রে আলাদা)। অন্তত জিপি কাস্টমার কেয়ার থেকে এমনটিই জানা গেছে। অর্থাৎ এখন থেকে আপনারা গ্রামীণফোন সিম থেকে দেশের যেকোনো নাম্বারে কল করলে প্রতি মিনিটে আগের চেয়ে কিছুটা বেশি খরচ হবে। তবে আপনাদের প্যাকেজের কলরেট আপনারা মেসেজের মধ্যে জানতে পারবেন অথবা মাইজিপি অ্যাপে দেখতে পারবেন।

বন্ধুরা একটু আগেই যেমনটি উল্লেখ করেছি, প্রিপেইড সিম এর পাশাপাশি পোস্ট পেইড সিমেও কলরেট বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে গ্রামীণফোন। এছাড়া গ্রাহকদেরকে এই পরিবর্তন সম্পর্কে এসএমএস এর মাধ্যমে জানাচ্ছে গ্রামীণফোন। আপনারা যদি গ্রামীণফোন সিম এর নিয়মিত ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন, তাহলে ইতিমধ্যে গ্রামীণফোন এর কল রেট বৃদ্ধির খবর এসএমএস এর মাধ্যমে জেনে থাকবেন।

গ্রামীণফোন ইদানীং প্রায়ই খবরের শিরোনামে থাকছে। আমরা সম্প্রতি দেখেছি গ্রামীণফোনের সিম বিক্রি স্থগিত করার ঘটনা করছে, যার ফলে কোম্পানিটি নতুন গ্রাহক রেজিস্টার করতে পারছেনা। আবার ই-সিম ও ৫জি এর মত প্রযুক্তি নিয়েও কাজ করছে এই প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়া বর্তমানে বৈশ্বিক বাজারে বিভিন্ন পণ্যমূল্যের উর্ধ্বগতি চলছে। হতে পারে এসব কারণ এক জায়গায় করে গ্রামীণফোন তাদের অর্থের যোগান দিতে গ্রাহকের দিকে ঝুঁকছে।

বন্ধুরা আগে যেমনটি দেখা গেছে, গ্রামীণফোন একটা পরিবর্তন আনলে অন্যান্য অপারেটরও সেই পথে হাঁটে। যেমন কিছুদিন আগে জিপির পর অন্যান্য অপারেটরও সর্বনিম্ন রিচার্জ ২০ টাকা করেছে (টেলিটক বাদে)। গ্রামীণফোন এর কল রেট বৃদ্ধি সম্পর্কে আপনাদের মতামত আমাদের জানাতে পারেন কমেন্ট সেকশনের মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.