সমস্যা এবং সমাধান

অনলাইনে জমির খতিয়ান বের করার নিয়ম, ২০২১ – কিভাবে অনলাইনে জমির খতিয়ান দেখবেন

জমির কাগজপত্র খুঁজে বের করা একটি জটিল কাজ যা মানুষকে বিরক্ত করে দেয়। পূর্বে জমির খতিয়ান খোঁজার জন্য তফসিল অফিসে গিয়ে সিরিয়াল দিতে হতো তবুও পাওয়া দুষ্কর। বর্তমানে সবকিছু ডিজিটাল হওয়ার কারণে এখন জমির খতিয়ান ও খুঁজতে সিরিয়াল দিতে হয়না তফসিল অফিসে অল্পসময়ের মধ্যেই জমির খতিয়ান খুঁজে পাওয়া সম্ভব। আগে মানুষ ভূমি অফিসে গিয়ে কাগজের স্তুপ এর মধ্য থেকে ঘন্টার পর ঘন্টা হয়রানি হয়ে খুঁজে বের করত জমির খতিয়ান কিন্তু এখন অনলাইনে জমির খতিয়ান অপশনে একটি ক্লিকেই বের হয়ে আসছে বি এস খতিয়ান, সি এস খতিয়ান, আর এস খতিয়ান, এবং এস এ খতিয়ান।

খতিয়ান বের করার নিয়ম

১,অনলাইনে জমির খতিয়ান বের করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে জমির খতিয়ান এর ওয়েবসাইট লিংকটিতে ক্লিক করতে হবে। [https:/ www.eporcha.com.bd/ khotian search panel]
২. আপনাদের জমির জরিপ নাম্বার অনুযায়ী বি এস, সি এস ,আর এস, এস এ, পটি, দিয়ারা ইত্যাদি কোন ধরনের সেটি বাছাই করে নিন। এরপর প্রথম বিভাগ পরপর জেলা, উপজেলা, সবশেষে মৌজা সিলেক্ট করে নিন।
৩. আপনাদের জমির খতিয়ান যাচাই জন্য আপনাদের চারটি অপশন দেওয়া হবে। (ক) খতিয়ান নং অনুযায়ী। (খ) দাগ নং অনুযায়ী। (গ) মালিকানার নাম অনুযায়ী। (ঘ) পিতা /স্বামীর নাম অনুযায়ী।
উপরের চারটি অপশন এর মধ্যে আপনাদের কাছে যে তথ্যটি সংরক্ষিত আসছে সেই তথ্যটি বামপাশে মাউস দিয়ে নির্দৃষ্ট ঘরে সিলেক্ট করে দিতে হবে। সিলেক্ট নিশ্চিত হয়ে গেলে নিচে আর একটি অপশন আসবে সেই অপশনে আপনাদের বসাতে হবে পূর্বে আপনারা খতিয়ান নং কিংবা দাগ নং কিংবা মালিকানার নাম কিংবা পিতা /স্বামীর নাম এর মধ্যে যেটি সিলেক্ট করেছেন একটি এই ওখানে সিলেক্ট করে নিন।
৪. পরের অপশনে আপনাদের দুটি সংখ্যা যোগ করতে বলা হবে আপনারা যোগ করে সেদিকে নিচের বক্সে লিখবেন।
৫. সবশেষে আপনাদের কে সার্চ অপশনে ক্লিক করতে হবে তাহলেই আপনারা আপনাদের জমির খতিয়ান দেখতে পারবেন।
খতিয়ানের অনলাইন কপি সংগ্রহ করার নিয়ম
আপনারা যদি অনলাইন থেকেই আপনাদের জমির খতিয়ান এর কপি সংগ্রহ করতে চান তাহলে আপনাদের কে আবেদনের সময় নাগরিকের নাম , পরিচয় পত্র নাম্বার ,মোবাইল নাম্বার ইত্যাদি তথ্য এখানে দিতে হবে। আপনাদের প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে আপনাদেরকে মোবাইল ব্যাংকিং কিংবা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে খতিয়ানের ফি দিতে হবে। ফি পরিশোধ হয়ে গেলে অনলাইন থেকে সরাসরি আপনারা আপনাদের জমির খতিয়ান এর কপি সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।
উপরের নিয়মকানুনগুলো যদি আপনারা অনুসরণ করেন তাহলে জমি কেনাবেচার ক্ষেত্রে আপনাদের কোন জালিয়াতে পরতে হবে না। আপনারা খুব তাড়াতাড়ি জানতে পারবে তুমি আসল মালিক সম্পর্কে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *