খাদ্য

টমেটোর উপকারিতা-সুস্থ থাকতে টমেটো খান

টমেটোর উপকারিতা: টমেটো আমাদের অত্যন্ত পরিচিত একটি ফল। টমেটো খেতে অনেক সুস্বাদু এবং এটা বেশ পুষ্টিকর। বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বেই টমেটো কম বেশি পাওয়া। আমাদের দেশে বিশেষ করে টমেটো শীতকালীন সবজি তবে বর্তমানে সারা বছরই টমেটো বাজারে পাওয়া যায়।

টমেটোর উপকারিতা-সুস্থ থাকতে টমেটো খান
 টমেটোর উপকারিতা-সুস্থ থাকতে টমেটো খান

 

টমেটো কাঁচা অথবা পাকা অবস্থায় সালাত করে বা রান্না করে খাওয়ার উপযুক্ত। তাছাড়াও টমেটোর সস বেশ জনপ্রিয়।টমেটো ছেলে সবার কাছে আকর্ষণীয় এবং পছন্দের একটি ফল।

 

টমেটোর উপকারিতা, টমেটোতে অসাধারণ কিছু পুষ্টি গুণ রয়েছে। বিশেষ করে ক্যালসিয়াম, আমিষ, ভিটামিন এ ও ভিটামিন সি রয়েছে।

টমেটো শরীরের নানা রকমের রোগ সহজেই প্রতিরোধ করে থাকে। এবং পাকস্থলী, ফুসফুস ও কোলন সহ দেহের ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। নিয়মিত টমেটো খাওয়া হৃদরোগের রোগীদের জন্য অত্যন্ত উপকারী।

 

 

টমেটোর পুষ্টিগুণ সমূহ

টমেটোতে রয়েছে প্রচুর শক্তিশালী পুষ্টিকর উপাদান। ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন কে, ফলেট, পটাশিয়াম সহ নানা রকম পুষ্টিসমৃদ্ধ উপাদান‌।

এছাড়াও ম্যাগনেসিয়াম, কপার এবং ফসফরাস সহ টমেটোতে রয়েছে শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি গুণ সমৃদ্ধ নানারকম উপাদান।

টমেটো সৌন্দর্য ধরে রাখে

টমেটোতে ভিটামিন সি থাকার পাশাপাশি স্বাস্থ্য ভালো থাকার রয়েছে নানা রকম পুষ্টি উপাদান। তাই টমেটো ত্বক উজ্জল, কোমল ও লাবণ্যময় হয় এবং ত্বকের নানা রকম রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

এছাড়াও ত্বক ফেটে যাওয়া, রুক্ষ হয়ে যাওয়া এবং কালো দাগ দূর করতে সহায়তা করে। টমেটো তরুণ্য ধরে রাখে এবং নিয়মিত টমেটো খেলে সহজে বয়সের ছাপ পড়ে না। যাদের বয়সের ছাপ পড়ে গেছে তাদের বয়সের ছাপ কমাতে টমেটো বেশ কার্যকরী।

টমেটোর চর্ম রোগ নিরাময় করে

টমেটো আমাদের ত্বকে নানা রকম চর্ম রোগ নিরাময় করে থাকে। বিভিন্ন রকম সমস্যা টমেটো অনায়াসে দূর করে।

এছাড়াও আক্রান্ত স্থানে টমেটোর রস লাগালে ভালো ফল পাওয়া যায়। চর্ম রোগ নিরাময়ের জন্য টমেটোর ভূমিকা অপরিসীম।

টমেটো উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে

উচ্চ রক্তচাপ এর রোগীদের জন্য টমেটো খুবই উপকারী। উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের প্রতিদিন খালি পেটে একটি বা দুটি টমেটো খাওয়া উচিত। এটাই সহজেই উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

টমেটো হেপাটাইটিস নিরাময়ে সাহায্য করে

টমেটো হেপাটাইটিস নিরাময়ে কার্যকরী অবদান রাখে। টমেটো, গাজর, চাল এবং সেলারি এক সঙ্গে রান্না করতে পারেন। সাথে প্রয়োজন মতো লবণ দিতে পারেন। এটা যেমন মজাদার এবং সুস্বাদু তেমনি হেপাটাইটিস নিরাময়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

টমেটো ক্ষত নিরাময় করে

অনেক সময় আমাদের মুখের ভিতর ক্ষতের সৃষ্টি হয়। তবে এই ক্ষত নিরাময়ে করে টমেটো সবচেয়ে সহজ সমাধান। টমেটো খেলে খুব দ্রুত ক্ষত সেরে যাবে।

টমেটো সর্দি-কাশি প্রতিরোধক

আমাদের আমাদের প্রায়ই সর্দি-কাশি ও জ্বরের সমস্যা দেখা দেয়। তবে টমেটো সহজেই এগুলো প্রতিরোধ করতে পারে। তবে এক্ষেত্রে পাকা টমেটো অথবা পাকা টমেটোর স্যুপ করে খেতে পারেন। ফলে সর্দি-কাশি ও জ্বরের দারুন উপকার পাবেন।

 

 

টমেটো দাঁত ও মাড়ি ভালো রাখে

যাদের মাড়ি থেকে রক্ত বের হয়, বিশেষ করে যাদের শরীরে ভিটামিন সি এর ঘাটতি রয়েছে। তাদের এই সমস্যার সমাধান হলো টমেটো। টমেটো মাড়ির পাশাপাশি দাঁত ভালো রাখতে সাহায্য করে। তাই যাদের মাড়ি থেকে রক্তপাত এবং দাঁতের সমস্যা রয়েছে তারা নিয়মিত খেতে পারেন।

টমেটো স্ট্রোক প্রতিরোধক

টমেটো পুষ্টিমান সম্পন্ন এবং মস্তিষ্কের রক্ত চলাচল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। ফলে মস্তিষ্কের রক্ত সঞ্চালনেও ব্যাঘাত ঘটে না এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি থাকে না। তাই স্ট্রোক প্রতিরোধের জন্য অবশ্যই নিয়মিত টমেটো খাওয়া উচিত।

টমেটো ত্বক সুরক্ষিত রাখে

ত্বক সুস্থ এবং সুরক্ষিত রাখার জন্য টমেটোর গুরুত্ব অপরিসীম। টমেটোতে বিটা ক্যারোটিন থাকায় সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে রক্ষা করে।

এবং লাইকোপিন অতিবেগুনী রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। এতে ত্বকে বলিরেখা পড়ার প্রবনতা কমে থাকে না।

টমেটো হাড় মজবুত করে

টমেটোতে ক্যালসিয়াম থাকার কারণে এটি আমাদের হাড়ের জন্য খুবই উপকারী। টমেটো হাড় শক্ত এবং মজবুত করার পাশাপাশি হাড়ের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে।

যাদের হাড়ে সমস্যা রয়েছে এবং হাড়ের জোড়ায় বা বিভিন্ন জায়গায় ব্যথার অনুভব হয় তাদের নিয়মিত টমেটো খাওয়া উচিত।

টমেটো অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণ করে

টমেটো অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞদের মতে যাদের অ্যাজমা রয়েছে তাদের নিয়মিত টমেটো খাওয়া উচিত। টমেটোতে ভিটামিন এ থাকার কারণে অ্যাজমা প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

টমেটো ক্যান্সার রোধ করে

টমেটোতে উচ্চ মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সহ বিভিন্ন প্রকার রোগ প্রতিরোধী উপাদান থাকায় সহজেই ক্যান্সার রোগের ঝুঁকি কমায়। এবং ক্যান্সার রোগীদের জন্য টমেটো অনেক উপকারী।

টমেটো চোখ ভালো রাখে

টমেটোর চোখের জন্য বেশ উপকারী ভিটামিন-এ থাকার কারণে চোখের জন্য খুবই ভালো। তাছাড়া যাদের চোখের সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য টমেটো অনেক উপকারী। টমেটোর চোখের নানা রকম রোগ প্রতিরোধ করে থাকে এবং চোখ ভালো রাখতে সাহায্য করে।

টমেটোর ডায়াবেটিস প্রতিরোধ

ডায়াবেটিস রোগীদের নিয়মিত টমেটো খাওয়া উচিত এটি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী। টমেটো দেহের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে যা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী।

টমেটো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

টমেটোতে উচ্চ মাত্রায় ভিটামিন সি থাকার কারণে সহজেই যেকোন রোগ প্রতিরোধ করতে পারে। অসুস্থ ব্যক্তিদের সুস্থ হওয়ার জন্য টমেটো অনেক উপকারী।

এছাড়াও টমেটো রক্ত জমাট বাঁধা প্রতিরোধ করে। আমরা জানি আমাদের শরীরে রক্ত জমাট বাঁধলে হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের আশঙ্কা থাকে।

পাশাপাশি টমেটো ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। নিয়মিত টমেটো খেলে সহজেই মানুষের শরীরের ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে থাকে।

তাই সুস্থ, সবল এবং রোগ মুক্ত থাকার জন্য আমাদের প্রত্যেকের উচিত নিয়মিত টমেটো খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *